শেষ পর্যন্ত লড়বেন শাহাদাত

সকল জেলা

নানা অভিযোগ থাকলেও শেষ পর্যন্ত ভোটের মাঠে থাকবেন বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী ডাক্তার শাহাদাত হোসেন।

বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী  জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগের সাথে নয়, নির্বাচনে পুরো রাষ্ট্রযন্ত্রের বিরুদ্ধে ভোটে লড়ছেন তিনি।

চট্টগ্রাম বি এড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দিতে যাওয়ার আগে, ওয়ার সিমেট্রি এলাকায় নিজ বাসায় এসব কথা জানান বিএনপি প্রার্থী।

চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী ডাক্তার শাহাদাত হোসেন। পেশায় চিকিৎসক শাহাদতের রাজনীতির শুরু ছাত্রদলের রাজনীতি থেকে। পরে পেশাজীবী সংগঠন হয়ে আসেন বিএনপির রাজনীতিতে।

তৃণমূল থেকে ধাপে ধাপে হন দলের মহানগর কমিটির সভাপতি। এক/এগারোর সময়ে বিএনপির রাজনীতিতে আলোচনায় আসা ডাক্তার শাহাদত- এবার মেয়র নির্বাচনের আগেও দলের প্রার্থী ছিলেন সবশেষ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও।

১৯৬৬ সালের জুনে জন্ম ডা. শাহাদাত হোসেন রাজনীতির শুরু আশির দশকে মাঝামাঝিতে। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী থাকার সময় ১৯৮৬-৮৭ সালে যুক্ত হন ছাত্রদলের রাজনীতিতে। পরের বছর হন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক। দু’বছর পর ৮৯ সালে ছাত্রদলের চট্টগ্রাম মেডিক্যালের সভাপতি।

শিক্ষা জীবন শেষে ১৯৯১ সালে যুক্ত হয়ে দলের পেশাজীবী সংগঠন ড্যাবের সভাপতি হওয়ার মধ্যে দিয়ে সক্রিয় হন বিএনপির রাজনীতিতে। হন বিএনপির বাকলিয়া ওয়ার্ড কমিটির সদস্য। পাশাপাশি বিএমএর দায়িত্বে।

২০০১ সালে থানা বিএনপির সদস্য সচিব, ২০০৪ সালে সাধারণ সম্পাদক, ২০০৭ সালে সভাপতি। ১/১১ এর সময় যখন এখানকার অনেক নেতা দেশের বাইরে চলে যাওয়ায় দায়িত্ব পান দলের চট্টগ্রামের মহানগরে। প্রথমে মহানগরের যুগ্ম আহ্বায়ক। ২০০৯ সালে মহানগরের সাধারণ সম্পাদক পরে ২০১৬-তে সভাপতি।

৩০ ডিসেম্বরের একাদশ সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৯ আসন থেকে নির্বাচনে অংশ নেন ডা. শাহাদাত। কারাগারে থেকেই নির্বাচন পরাজিত হন তিনি।