মেয়র পদে ৪০টি পৌরসভায় আ.লীগ, বিএনপি ২, স্বতন্ত্র ১৪টিতে জয়ী

বাংলাদেশ

৬০ পৌরসভায় মেয়র পদে এখন পর্যন্ত আওয়ামী লীগ জয় পেয়েছে ৪০ টিতে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ১৪ টিতে এবং মাত্র দুইটি পৌরসভায় জয় পেয়েছেন বিএনপির প্রার্থী।

তৃতীয় দফায় ৬৩ পৌরসভার মধ্যে মেয়র পদে আগেই দুটিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বিজয়ী হন। একটিতে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীসহ সব পদে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হওয়ায় শনিবার মেয়র পদে নির্বাচন হয় ৬০টি পৌরসভায়। 

কিছু বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ ছাড়া শনিবার শান্তিপূর্ণ পরিবেশে হয় তৃতীয় দফার পৌরসভার ভোট। 

ভোট শেষ হওয়ার পর গণণা শেষে শুরু হয় ফল ঘোষণা। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা অধিকাংশটিতেই জয় পান। জয়ী প্রার্থীরা হলেন, পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে গোলাম কবীর, বরগুনা সদরে কামরুল আহসান মহারাজ, পাথরঘাটায় আনোয়ার হোসেন আকন, দিনাজপুরের হাকিমপুরে জামিল হোসেন চলন্ত, শেরপুরের নকলায় হাফিজুর রহমান লিটন, বগুড়ার নন্দীগ্রামে আনিছুর রহমান, ভোলার বোরহান উদ্দিনে রফিকুল ইসলাম ও দৌলতখানে জাকির হোসেন তালুকদার জয় পেয়েছেন।  

নওগাঁর ধামইরহাটে আমিনুর রহমান, কুড়িগ্রামের উলিপুরে মামুন সরকার মিঠু, রাজশাহীর কেশরহাটে শহীদুজ্জামান শহীদ, নড়াইল সদরে আঞ্জুমান আরা ও কালিয়ায় ওয়াহিদুজ্জামান হীরা, টাঙ্গাইল পৌরসভায় এস এম সিরাজুল হক আলমগীর, মির্জাপুরে সালমা আক্তার শিমুল ও ভূঞাপুরে মাসুদুল হক মাসুদ, সখীপুরে আবু হানিফ আজাদ, মধুপুরে সিদ্দিক হোসেন খান, ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডে মোহাম্মদ ফারুক হোসেন, সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মনিরুজ্জামান বুলবুল, রাজবাড়ীর পাংশায় ওয়াজেদ আলী মন্ডল, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে মীর হোসেন মীরু ও বরুড়ায় বক্তার হোসেন, চাদপুরের হাজীগঞ্জে মাহবুল উল আলম, মৌলভীবাজারে ফজলুর রহমান, কিশোরগঞ্জ সদরে পারভেজ মিয়া ও কটিয়াদীতে শওকত ওসমান, শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে আবু বকর সিদ্দিক, নকলায় হাফিজুর রহমান লিটন, নেত্রকোণার দূর্গাপুরে আলা উদ্দিন,  বগুড়ার শিবগঞ্জে তৌহিদুর রহমান মানিক, নাটোরের সিংড়ায় জান্নাতুল ফেরদৌস, শরীয়তপুরের জাজিরায় ইদ্রিস মাদবর, নড়িয়ায় অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, চুয়াডাঙ্গায় দর্শনায় মতিয়ার রহমান, জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে মনির উদ্দিন, খুলনার পাইকগাছায় সেলিম জাহাঙ্গীর জয়ী হয়েছেন। 

স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় পান ১৪ টিতে। যাদের বেশীর ভাগই আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন।  

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রাজশাহীর মুন্ডুমালায় সাইদুর রহমান, সিলেটের গোলাপগঞ্জে আমিনুল ইসলাম রাবেল, জকিগঞ্জে আবদুল আহাদ, বগুড়ার ধুনটে এজি এম বাদশা, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে মকিতুর রহমান রাফি, পাবনায় শরীফউদ্দিন প্রধান, ঝিনাইদহের কোঁটচাঁদপুরে শহীদুজ্জামান সেলিম, শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে আবুল বাশার চোকদার, ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে আবদুস ছাত্তার ও গৌরীপুরে সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, নোয়াখালীর চৌমুহনীতে খালেদ সাইফুল্লাহ, চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুরে মতিউর রহমান খান নির্বাচিত হন।

৬০ পৌরসভায় সবকটিতে বিএনপি প্রার্থী দিলেও জয় পান মাত্র দুইজন।