বিও অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে অনলাইনে

বাংলাদেশ

পুঁজিবাজারে লেনদেনের জন্য বেনিফিশিয়ারি ওনার্স বা বিও অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে অনলাইনে। দেশি ও বিদেশি বিনিয়োগকারীরদের এ সুযোগ থাকবে।

মঙ্গলবার দুপুরে, রাজধানীর আগারগাওয়ের বিএসইসি অডিটোরিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে অনলাইনে বিও হিসাব কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়।

একজন বিনিয়োগকারীকে নির্ধারিত ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজের মোবাইল নম্বর ও ই–মেইল দিয়ে বিও হিসাব খোলার প্রথম ধাপে লগ–ইন করতে হবে। সঙ্গে সঙ্গে ওই বিনিয়োগকারীর মোবাইল ও ই–মেইলে একটি গোপন পাসওয়ার্ড চলে যাবে। সেটি একবারই ব্যবহার করা যাবে, এ কারণে সেটি ওটিপি বা ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড হিসেবে পরিচিত।

ওই পাসওয়ার্ড দিয়ে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে ওই একজন বিনিয়োগকারীকে। কয়েকটি ধাপে বিনিয়োগকারীর জাতীয় পরিচয়পত্র, ব্যাংক হিসাব নাম্বার, ব্যাংক চেকের কপি, বিনিয়োগকারীর ছবি, স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি আপলোড করতে হবে।

এমনকি বিনিয়োগকারীকে বেছে নিতে হবে তার পছন্দের ব্রোকারেজ হাউস। এরপর ওই আবেদন চলে যাবে বিনিয়োগকারীর পছন্দের ব্রোকারেজ হাউসে। ব্রোকারেজ হাউসের পক্ষ থেকে যাচাই–বাছাইয়ের পর সব ঠিকঠাক থাকলে সেই আবেদন গ্রহণ করা হবে। তখন স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে একটি নোটিফিকেশন চলে যাবে বিনিয়োগকারীর মোবাইল ও ই–মেইলে।

সেই নোটিফিকেশন পাওয়ার পর বিনিয়োগকারীকে বিও ফি জমা দিতে হবে। বিও ফি জমা হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট ব্রোকারেজ হাউস সিডিবিএলের সিস্টেমে তা আপলোড করে দেবে। আর বিনিয়োগকারী মোবাইল ও ই–মেইলে পেয়ে যাবেন ‘সাকসেসফুল’ বার্তা।

প্রবাসী বাংলাদেশিদের অনলাইনে বিও হিসাব খুলতে পাসপোর্টের স্ক্যান কপি আপলোড করতে হবে। অনলাইনের এ সুবিধা চালু হলে বিনিয়োগকারীরা ঘরে বসে বিও হিসাব খোলার সুযোগ যেমন পাবেন, তেমনি তার সময় ও খরচ বাঁচবে।