নীতি ঠিক না করলে বিএনপি’র সামনে বিপর্যয়: মান্না

বাংলাদেশ

ডাক্তার জাফরুল্লাহকে হেনস্তা করে বিএনপি অগণতান্ত্রিক মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ২০ দল ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিকরা। এই অবস্থান থেকে সরে না আসলে বিএনপির রাজনৈতিক ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কা রয়েছে বলে জানান তারা।

গেল ২৬শে জুন জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সমালোচনা করায় সেখানেই হেনস্থার শিকার হন ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী। যা নিয়ে  রাজনৈতিক অঙ্গনে চলছে নানা আলোচনা সমালোচনা।

এলডিপির চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ (বীর বিক্রম) বলেন, ‘অন্য কাউকে আঘাত করে অপমান করার অধিকার আমার নাই। প্রত্যেকের মত প্রকাশ করার স্বাধীনতা রয়েছে। আমাদের নিজেদেরও সংযত হয়ে কথা বলতে হবে।’

ডাক্তার জাফরুল্লাহকে হুমকি বিএনপির রাজনীতির জন্য শুভ ইঙ্গিত নয় উল্লেখ করে নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘রাজনীতিটা প্রধানত নির্ভর করে নীতির ওপর, কার্যক্রমের ওপর। সেখানে যদি ভুল থাকে তাহলে দল কত বড় সেটা বিষয় না। বিএনপি এমনিতেই আন্দোলনের মাঠে রাজা নাই। রাজনীতির মাঠেও যদি তারা এভাবে অগণতান্ত্রিক আচরণ করতে থাকে তাহলে তারা বাইরে চলে যাবে। কিছুই করতে পারবেনা।’

সমালোচনা করতে পারেন যেকেউ। এটাই গণতন্ত্র। তবে, ভারসাম্যপূর্ণ সমালোচনার আহবান ২০ দলীয় জোটের আরেক শীর্ষ নেতার। বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘আমাদের কোন আচরণ যেন মানুষের মনে এমন ধারনার সৃষ্টি না করে যে এরা আগামী দিনে দেশ চালানোর জন্য যোগ্য নয়।’