রামেকের করোনা ওয়ার্ডে প্রাণ গেল আরও ১৮ জনের

বাংলাদেশ

গত ২৪ ঘন্টায় রাজশাহী মেডিক্যালের করোনা ওয়ার্ডে আরও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে রাজশাহীর ৬জন, নাটোরের ৪জন, পাবনা ও নওগাঁর ৩জন করে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও কুষ্টিয়ার একজন করে মারা গেছেন।

মৃতদের মধ্যে ৬জন করোনা পজেটিভ, ৭জন উপসর্গ নিয়ে এবং ৫ জন নেগেটিভ হবার পর মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল  শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ওয়ার্ডে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ৫৩জন। এনিয়ে ৫১৩বেডের বিপরীতে মোট ভর্তি রোগী আছেন ৪১৮জন।

এর আগেরদিন রাজশাহীর দুটি পিসিআর ল্যাবে রাজশাহী জেলার ৪২৮টি নমুনা পরীক্ষায় ১৪০ জনের করোনা পজেটিভ আসে। রাজশাহীতে শনাক্তের হার ৩২দশমিক ৭১শতাংশ। চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৯৫ নমুনায় ৫১ জনের পজেটিভ আসে। শনাক্ত হার ৫৩ দশমিক ৬৮ শতাংশ।

এর আগে, শনিবার রাজশাহী মেডিক্যালের করোনা ওয়ার্ডে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে পাবনার ৫ জন, রাজশাহীর ৩জন, নওগাঁর ৩জন, নাটোর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন করে মারা যান।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিশ্চিত হওয়া গেলেও বাংলাদেশে ভাইরাসটি শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। ওইদিন তিনজন করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছিলো স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। করোনায় মৃত্যুর হার শুরুতে বৃদ্ধি পাওয়ার পর অনেকটাই কমে এসেছিলো সে হার। তবে, দেশে করোনায় ২য় ঢেউয়ে আবারো বাড়তে শুরু করেছে সংক্রমণ হার ও মৃতের সংখ্যা। উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১শে মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০শে জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে সংস্থাটি। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)।