ভারত থেকে নিম্নমানের চাল আমদানির অভিযোগ

বাংলাদেশ

ভারত থেকে নিম্নমানের চাল আমদানির অভিযোগে চট্টগ্রাম বন্দরে জাহাজ থেকে খালাস বন্ধ করে দিয়েছে খাদ্য বিভাগ।

দেশের অভ্যন্তরীণ খাদ্যসংকট মোকাবিলায় খাদ্য মন্ত্রণালয় জি টু জি চুক্তির আওতায় ভারত থেকে চাল আমদানির সিদ্ধান্ত নেয়। এর আওতায় এমডি ড্রাগন নামে একটি জাহাজে গত ২২শে জুলাই ১৯ হাজার ২শ’ টন চাল আনা হয়। ওই চাল সরবরাহ করে ভারতের ট্রিটন লিমিটেড।

প্রায় ২ হাজার টন চাল খালাস করার পর গত বৃহস্পতিবার নিম্নমানের বিষয়টি খাদ্য বিভাগের নজরে আসার পর খালাস বন্ধ করে দেয়া হয়। নিম্নমানের চালগুলো ভারতে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

খাদ্য বিভাগ সূত্র জানায়, ২২ জুলাই ভারত থেকে ১৯ হাজার ২০০ টন সিদ্ধ চাল নিয়ে ‘এমভি ড্রাগন’ নামে জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দরে আসে। ওই চাল সরবরাহ করেছে ভারতের ‘ট্রিটন লিমিটেড’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান। আমদানি করা বেশির ভাগ চাল লালচে, ঘোলা এবং ভাঙা। এছাড়া কিছু কিছু চাল খাওয়ার অনুপযোগী। এর আগে চলতি বছরের ৮ মে একই জাহাজে করে ২০ হাজার টন চাল নিয়ে আসা হয়। সেই চাল নিম্নমানের হওয়ায় পরিবহন ঠিকাদাররা খালাস বন্ধ করে দেন। পরে নানা দেন দরবার করে সে চালের বিরাট অংশ খাদ্য বিভাগকে গছিয়ে দেয়া হয়।